নগরীতে হ্যাপি ক্লাবের ১১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

একাত্তর ডেস্ক :: সিলেটের সেচ্ছাসেবী সংগঠন হ্যাপি ক্লাব’র ১১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। সভার শুরুতে হ্যাপি ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রয়াত সৈয়দ মিজানের রূহের মাগফিরাত কামনা করে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

শুক্রবার বাদ এশা ক্লাবের অস্থায়ী কার্যালয় চৌহাট্টাস্থ মানরু শপিং সিটিতে আলোচনা সভা ও ২০২১-২২ সালের নতুন কমিটি ঘোষনা ও রাত্রীকালীন ভোজনের আয়োজন করা হয়। সভার শুরুতেই পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন সংগঠনের সদস্য মিজান ইবনেখান সুমন।

সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন হ্যাপি ক্লাবের সিনিয়র সদস্য মো. মেহেদী হাসান। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিটি সুপার মার্কেটের সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. রুমেল আহমদ, ব্লু-ওয়াটার মার্কেটের ব্যবসায়ী রাসেল আহমদ সুমন, মানরু শপিং সিটির ব্যবসায়ী দেলোয়ার খান, দৈনিক একাত্তরের কথা পত্রিকার সিনিয়র সিস্টেম অ্যানালিস্ট রিটন আহমদ দিপু, আজিজুল হক গাজী, মো. সামাদ হোসেন প্রমুখ।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পর্তুগাল প্রবাসী মো. এনামুল হক, মিজানুর রহমান মিজান, আবুল মজুমদার, সুমন আহমদ, শামিম, বলাই, রনি, নাইম, রাজন, ফরহাদ, শ্যামল প্রমুখ। আলোচনা সভাশেষে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী কেক কাটেন সংগঠনের সদস্যবৃন্দ।

সবশেষে ২০২১-২২ সালের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। হ্যাপি ক্লাবের নবগঠিত কমিটি হলো সভাপতি-মো. মেহেদী হাসান, সিনিয়র সহ-সভাপতি-মো. সামাদ হোসেন, সহ-সভাপতি-রাসেল আহমদ সুমন, সাধারণ সম্পাদক-মো. রুমেল আহমদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক-দেলোয়ার খান, কোষাধ্যক্ষ-আজিজুল হক গাজী, সহ-কোষাধ্যক্ষ- মিজানুর রহমান মিজান, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক-মিজান ইবনেখান সুমন, দপ্তর সম্পাদক-রিটন আহমদ দিপু, ক্রীড়া সম্পাদক-আবুল মজুমদার, প্রচার সম্পাদক-সুমন আহমদ।

উল্লেখ্য, হ্যাপি ক্লাব ২০১০ সালের ১ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠিত হয়। সংগঠনটি অসহায় রোগীকে স্বেচ্ছায় রক্তদান ও ম্যানেজ, ব্লাড ডোনেশন প্রোগ্রাম, বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি, সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বিভিন্ন শিক্ষার উপকরণ বিতরণসহ নানান সেবামূলক কার্যক্রম চালিয়ে আসছে।

একাত্তরেরকথা/ইআ