সিলেটে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংহতি দিবস পালন

একাত্তর ডেস্ক :: সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংহতি দিবস পালন করেছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট জেলা সংসদ। দিনটি উপলক্ষে শুক্রবার (১ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩ টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের মাধ্যমে ১৯৭৩ সালের পহেলা জানুয়ারি সাম্রাজ্যবাদবিরোধী মিছিলে পুলিশের গুলিতে শহীদ মীর্জা কাদিরুল ও মতিউল ইসলামের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়।

পরে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট জেলার সভাপতি সরোজ কান্তির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নাবিল এইচের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাসদ সিলেট জেলার সমন্বয়ক কমরেড আবু জাফর, যুব ইউনিয়ন সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জন দাস খোকন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট নগর শাখার সভাপতি সঞ্জয় কান্ত দাস, ছাত্রফ্রন্ট সিলেট মহানগরের আহ্বায়ক সঞ্জয় শর্মা, ছাত্রফ্রন্ট সিলেটের সংগঠক ফাহিম আহমদ চৌধুরী, ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট মহানগরের সাধারণ সম্পাদক বিশাল দেব।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন যুব ইউনিয়ন সিলেট জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজালাল সুমন, বিজ্ঞান আন্দোলন মঞ্চ সিলেটে সংগঠক প্রণব জ্যাতি পাল, ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট মহানগরের সভাপতি হাসান বক্ত চৌধুরী কাওছার, মদন মোহন কলেজের সভাপতি অনির্বান রায় প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, ‌৭৩-এর পহেলা জানুয়ারি সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংগ্রামের প্রেরণার উৎস মুক্তিযুদ্ধের সাম্রাজ্যবাদবিরোধী চেতনা। বাংলাদেশের শাসকগোষ্ঠী মুখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বললেও সাম্রাজ্যবাদের কাছে নতজানু নীতি নিয়ে রাষ্ট্র পরিচালনা করছে। সাম্রাজ্যবাদের কাছে নতজানু নীতি নিয়ে কখনও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। তাই সাম্রাজ্যবাদবিরোধী লড়াইয়ে প্রগতিশীল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। দেশ ও গণবিরোধী চুক্তি বাতিলে সরকারকে বাধ্য করতে হবে। সাম্রাজ্যবাদের সব অপচেষ্টা এবং আগ্রাসন এর বিরুদ্ধে লড়াই জারি রাখতে হবে।

একাত্তরেরকথা/ইআ