সোমালিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করছেন ট্রাম্প

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :: মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগন জানিয়েছে, সোমালিয়া থেকে অধিকাংশ সেনা প্রত্যাহার করবে যুক্তরাষ্ট্র। তবে এটি নীতির কোনও পরিবর্তন নয় বলেও জানিয়েছে তারা। পেন্টাগন জানিয়েছে, ২০২১ সালের শুরুতে সোমালিয়া থেকে নিজেদের অধিকাংশ কর্মকর্তা ও অ্যাসেটস সরিয়ে আনতে তাদের এবং ইউএস আফ্রিকমকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ওয়াশিংটন আফ্রিকায় সম্মুখ সারি থেকে সরে আসছে। তবে সরকারের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে নিজেদের মিত্রদের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এর ফলে বাহিনীর কিছু সদস্যকে পূর্ব আফ্রিকার বাইরে অন্যত্র মোতায়েন করা হবে। যদিও সোমালিয়ায় থাকা বাকি সেনাসদস্যদের প্রতিবেশী দেশগুলোতে মোতায়েন করা হবে। যাতে করে সোমালিয়া কার্যক্রম চালানো সহিংস চরমপন্থী সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্র বাহিনী ক্রস-বর্ডার অভিযান পরিচালনা করতে পারে।

পেন্টাগন আরও জানিয়েছে, তারা যুক্তরাষ্ট্রের সুরক্ষায় সহিংস চরমপন্থী সংগঠনগুলোকে ধ্বংস করার পাশাপাশি ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে কৌশলগত অবস্থান নিশ্চিত করতে চাইছে। সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে থ্যাংকসগিভি ডে পালন করতে কয়েকদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী ক্রিস মিলারের মোগাদিসু সফরের পর এই ঘোষণা এলো।

এর আগে গত অক্টোবরে ব্লুমবার্গা নিউজ জানায়, সোমালিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহারে ট্রাম্পের জন্য খসড়া তৈরি করছে পেন্টাগন। সোমালিয়ায় ৬৫০-৮০০ মার্কিন সেনাসদস্য রয়েছে। সন্ত্রাসী গ্রুপ আল-শাবাবের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সোমালিয়াকে সহায়তা করে এই মার্কিন সেনারা।
সুত্র : আনাদোলু এজেন্সি