অস্ট্রিয়ার সাবেক অর্থমন্ত্রীর ৮ বছরের কারাদণ্ড

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :: দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে শুক্রবার অস্ট্রিয়ার সাবেক অর্থমন্ত্রী কার্ল-হেইঞ্জ গ্রাসারকে আট বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। নিলামে ৬০ হাজার সরকারি অ্যাপার্টমেন্ট বিক্রির ঘটনায় অস্ট্রিয়ার সাবেক অর্থমন্ত্রীসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ ওঠে। অর্থ পাচার, প্রতারণা, নথি জালিয়াতিসহ বেশকিছু অভিযোগে তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা হয়।

আদালতের রায়ে বলা হয়, গ্রাসার ও একজন মধ্যস্বত্বভোগী মিলে ৬০ হাজার অ্যাপার্টমেন্ট বিক্রির সরকারি নিলামের তথ্য ফাঁস করেন, যার ভিত্তিতে প্রতিদ্বন্দ্বীদের এক পক্ষ নিলাম জিততে সক্ষম হয়। নিলামে জিতে ৯৬১ মিলিয়ন ইউরোতে অ্যাপার্টমেন্টগুলো কিনে নেয় একটি পক্ষ। তিন বছর পর তারা আবার সেগুলোর দাম দ্বিগুণ করে ফেলে।

এ ছাড়া গ্রাসারের রাজনৈতিক দল ফ্রিডম পার্টি অব অস্ট্রিয়ার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওয়াল্টার মেইশবার্জার এবং লবিস্ট পিটার হোসেজ্জারকে নিলামে বিজয়ী পক্ষ পুরো নিলাম অঙ্কের এক শতাংশ অর্থাৎ ৯ দশমিক ৬ মিলিয়ন ইউরো ঘুষ দেয়। এই দুজনকেও কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত।

২০০০ সালে মাত্র ৩১ বছর বয়সে ইউরোপের দেশ অস্ট্রিয়ার সর্বকনিষ্ঠ অর্থমন্ত্রী হন দেশটির তরুণ রাজনীতিবিদ গ্রাসার। তিনি অবশ্য সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এবং উচ্চ আদালতে আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন।
সুত্র : বিবিসি