সংবাদপত্রের বিপক্ষে অবস্থানকারীদের নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে

সিলেটজুড়ে প্রতিবাদের ঝড়

একাত্তর ডেস্ক :: দৈনিক একাত্তরের কথা’য় প্রকাশিত প্রতিবেদনের প্রতিবাদে সম্পাদক ও প্রকাশককে উদ্দেশ্য করে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমের সমর্থক-অনুসারীদের শিষ্টাচার বিবর্জিত হুমকিমূলক বক্তব্য ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারিত ভিডিওতে ছালেহ সেলিমের অশ্লীল, ছালেহ আহমদ সেলিমের দেওয়া আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্যের প্রতিবাদে বিবৃতি প্রদান করেছে সিলেটের বিভিন্ন প্রেসক্লাব ও সাংবাদিক সংগঠন। বুধবার বিবৃতি পাঠিয়েছে বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাব, বিশ্বনাথ প্রেসক্লাব, ওসমানীনগর প্রেসক্লাব, বালাগঞ্জ প্রেসক্লাব, কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাব, কানাইঘাট প্রেসক্লাব, নবীগঞ্জ প্রেসক্লাব, লাখাই উপজেলা প্রেসক্লাব, গোলাপগঞ্জ সাংবাদিক কল্যাণ সমিতি বিয়ানীবাজার জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, জৈন্তাপুর অনলাইন প্রেসক্লাব, নবীগঞ্জ সাংবাদিক ফোরাম, নবীগঞ্জ রিপোটার্স ইউনিটি, নবীগঞ্জ প্রয়াত সাংবাদিক স্মৃতি সংসদ, লাখাই অনলাইন প্রেসক্লাব। ছালেহ আহমদ সেলিম ও তার সমর্থক-অনুসারীদের শিষ্টাচার বিবর্জিত বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, সংবাদপত্র হচ্ছে জাতির দর্পণ। সংবাদপত্রের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া মানে জাতির বিবেকের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া। বিবৃতিতে নেতৃবন্দ বলেন, যারা সংবাদপত্রের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে তাদের তাদেরকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে।

বিশ্বনাথ প্রেসক্লাব:
দৈনিক একাত্তরের কথা’য় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ওই মানববন্ধনে এবং একটি ভিডিও রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে অশালীন-আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে বিশ^নাথ প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, মানববন্ধন ও এক ভিডিও রেকর্ডে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে। একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশককে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়। যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে মনে করেন তারা। এই অনাকাঙ্খিত আপত্তিকর বক্তব্য পরিহারের জন্যে ছালেহ আহমদ সেলিমের প্রতি দাবি জানান বিশ্বনাথ প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ। নিন্দা জ্ঞাপনকারীরা হচ্ছেন- প্রেসক্লাবের আহবায়ক আব্দুল আহাদ (সাপ্তাহিক ইউরো-বাংলা), যুগ্ম আহবায়ক এ এইচ এম ফিরোজ আলী (সম্পাদক, বিশ্বনাথেরডাক টোয়েন্টিফোর ডটকম), মোসাদ্দিক হোসেন সাজুল (দ্যা ট্রাইব্যুনাল), সদস্য জাহাঙ্গীর আলম খায়ের (সমকাল), আশিক আলী (যুগান্তর), রুহেল উদ্দিন (গণমুক্তি), এমআর টুনু তালুকদার (আনন্দ টিভি), নবীন সোহেল (স্টাফ রিপোর্টার, (শুভ প্রতিদিন), কামাল মুন্না (যায়যায়দিন), আক্তার আহমদ শাহেদ (মানবজমিন), শুকরান আহমদ রানা (সকালের সময়), মিছবাহ উদ্দিন (আমার সংবাদ), আব্দুস ছালাম (ইনকিলাব), বদরুল ইসলাম মহসিন (জৈন্তাবার্তা), মশাহিদ আলী (সিলেট প্রতিদিন)।

ওসমানীনগর উপজেলা প্রেসক্লাব:
সিলেটের একমাত্র ট্যাবলয়েট পত্রিকা দৈনিক একাত্তরের কথার সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমের করা অশালিন- আপত্তিকর মন্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ওসমানীনগর উপজেলা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ। এক প্রতিবাদ বার্তায় ওসমানীনগর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা অবিলম্বে কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিম তার বক্তব্য প্রত্যাহার করে নেয়ার আহ্বান জানান। অন্যথায় সাংবাদিক সমাজ এরকম বেয়াদবি সহ্য করে বসে থাকবে না। নিন্দা জ্ঞাপনকারীরা হলেন, ওসমানীনগর উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি জুবেল আহমদ সেকেল, সহ-সভাপতি উজ্জ্বল ধর, সাধারণ সম্পাদক শিপন আহমদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, কোষাধ্যক্ষ আব্দুল মতিন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক রনিক পাল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক কবির আহমদ, দপ্তর সম্পাদক এস জামান ফরহাদ, নির্বাহী সদস্য এমএফ আলী ফয়েজ, আনোয়ার হোসেন আনা, মো. কয়েছ মিয়া, জয়নাল আবেদীন, সিতু সূত্র ধর ও নূরুল ইসলাম রাফি।

বালাগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাব:
দৈনিক একাত্তরের কথায় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথার সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় বালাগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা জানানো হয়। প্রেসক্লাবের সভাপতি রজত চন্দ্র দাস ভুলন বলেন, মানববন্ধন ও ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে। একটা পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশককে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়। যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি।

কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাব:
দৈনিক একাত্তরের কথা’য় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অ্যাডভোকেট ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথার সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান এবং একাত্তরের কথার সম্পাদক, প্রকাশককে হুমকি দিয়েছেন কাউন্সিলর সেলিম ও তার অনুসারীরা। একাধিক ভিডিওক্লিপে দেখা গেছে সাংবাদিক সমাজের প্রতি অশ্লীল মন্তব্য করেছেন কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিম। একজন জনপ্রতিনিধির কাছ থেকে এ ধরণের বক্তব্য এবং উর্দ্ধত্য আচরণ মোটেও শোভনীয় নয়। কাউন্সিলর সেলিম ও তার বাহিনী কর্তৃক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারিত বিষোদগারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জ্ঞাপন করেছেন কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ। বুধবার নেতৃবৃন্দ’র পক্ষ পক্ষ থেকে কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি শাব্বির আহমেদ এবং সাধারণ সম্পাদক আবিদুর রহমান এক বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে বলেন, মানববন্ধন ও ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে। একাত্তরের কথার সম্পাদক ও প্রকাশককে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়, যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে আমরা মনে করি। ছালেহ আহমদ সেলিম ও তার বাহিনী কর্তৃক অনাকাঙ্খিত আপত্তিকর এ বক্তব্য পরিহারের দাবি জানিয়েছেন কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ।

কানাইঘাট প্রেসক্লাব:
প্রকাশিত একটি সংবাদের জের ধরে সিলেটের ট্যবলয়েড পত্রিকা দৈনিক একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিম কর্তৃক কুরুচিপূর্ণ আপত্তিকর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন কানাইঘাট প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ। অবিলম্বে কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে এ ধরনের অশোভন বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানান তারা।
বুধবার কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সভাপতি রোটারিয়ান শাহজাহান সেলিম বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন সহ নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে কাউন্সিলর ছালেহ আহমদের আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে বলেন, কোন প্রকাশিত সংবাদের ব্যাপারে কারো আপত্তি থাকলে প্রতিবাদ জানানোর মাধ্যম রয়েছে। কিন্তু মানববন্ধন ও ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হলে সাংবাদিক সমাজ সেটা কখনো মেনে নিতে পারবেন না। কাউন্সিলর ছালেহ আহমদের একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশককে জড়িয়ে এমন অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে কখনো কাম্য নয়। যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে আমরা মনে করি।
বিবৃতিদাতা অন্য নেতৃবৃন্দ হলেন, ক্লাবের সহ সভাপতি আব্দুন নুর, সহ সম্পাদক মাহবুবুর রশিদ, দপ্তর সম্পাদক মুমিন রশিদ, কোষাধ্যক্ষ মিসবাহুল ইসলাম চৌধুরী, সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহীন আহমদ, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, কার্যনির্বাহী সদস্য আলা উদ্দিন, সুজন চন্দ অনুপ, সাংবাদিক তাওহিদুল ইসলাম, মাহফুজ সিদ্দিকী, জয়নাল আজাদ।

তাহিরপুর প্রেসক্লাব:
দৈনিক একাত্তরের কথা’য় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশের জের ধরে মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করায় তাহিরপুর প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে নিন্দা জানানো হয়েছে। বুধবার দুপুরে এক বিবৃতিতে তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দরা এ নিন্দা জানান। বিবৃতিতে তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দরা বলেন, সম্প্রতি একটি মানববন্ধনে ও ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে। একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশককে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়। যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে আমরা মনে করি। অনাকাঙ্খিত আপত্তিকর এ বক্তব্য পরিহারের দাবি জানান তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দরা। বিবৃতিদাতারা হলেন, তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি (সমকাল) আমিনুল ইসলাম সহসভপতি (যায়যায়দিন) বাবরুল হাসান বাবলু, সাধারণ সম্পাদক (ইত্তেফাক) আলম সাব্বির, যুগ্ম সম্পাদক (মানবজমিন) এম.এ রাজ্জাক, সাংগঠনিক সম্পাদক (সংবাদ) কামাল হোসেন, অর্থ বিষয়ক সম্পদক (ভোরের কাগজ) সাজ্জাদ হোসেন শাহ, সদস্য (দেশ) আবির হাসান মানিক প্রমুখ।

নবীগঞ্জ প্রেসক্লাব:
আমাদের নবীগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি দৈনিক একাত্তরের কথা’য় একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধনে ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ। বুধবার নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. সরওয়ার শিকদার ও সাধারণ সম্পাদক মো. আলমগীর মিয়ার যৌথ বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানান। বিবৃতিতে তারা বলেন, মানববন্ধন থেকে একাত্তরের কথা পত্রিকা এবং এর সম্পাদক ও প্রকাশককে উদ্দেশ্য করে শিষ্টাচার বিবর্জিত হুমকিমূলক বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে, যা কোন ভাবেই কাম্য নয়। এছাড়া মানববন্ধন পরে ছালেহ আহমদ সেলিম তার নিজ অফিসে বসে একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশককে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য রেখে এর একটি ভিডিও রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও আপলোড করেছেন যা সংবাদপত্রের স্বাধীনতার জন্য হুমকি স্বরূপ। সিলেট বিভাগে রাজনৈতিক শিষ্টাচারে জনপ্রতিনিধি ও সংবাদপত্রের মাঝে সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্কের পরম্পরা যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। আমরা আশা করবো সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধি দৈনিক একাত্তরের কথা এবং এর সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে দেওয়া কাউন্সিলর সেলিমের বক্তব্য পরিহার করার দাবি জানান নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ।

গোলাপগঞ্জ সাংবাদিক কল্যাণ সমিতি:
দৈনিক একাত্তরের কথা’য় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে।
বুধবার গোলাপগঞ্জ সাংবাদিক কল্যাণ সমিতির নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে সমিতির সভাপতি অজামিল চন্দ্র নাথ ও সাধারণ সম্পাদক সাকিব আল মামুন এক বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্য’র নিন্দা জানিয়ে বলেন, মানববন্ধন ও এক ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে। একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়। যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে আমরা মনে করি। অনাকাঙ্খিত আপত্তিকর এ বক্তব্য পরিহারের দাবি জানান গোলাপগঞ্জ সাংবাদিক কল্যাণ সমিতির নেতৃবৃন্দ।

জৈন্তাপুর অনলাইন প্রেসক্লাব:
সিলেটের জনপ্রিয় পত্রিকা দৈনিক একাত্তরের কথা’য় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে।
বুধবার জৈন্তাপুর অনলাইন প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে প্রেসক্লাবের সভাপতি এম এম রুহেল, সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ান করিম সাব্বির এক বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে বলেন, মানববন্ধন ও এক ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে। একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়। যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে আমরা মনে করি। অনাকাঙ্খিত আপত্তিকর এ বক্তব্য পরিহারের দাবি জানান জৈন্তাপুর অনলাইন প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ।

বিয়ানীবাজার জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন:
একাত্তরের কথায় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথার সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে। বুধবার বিকালে বিয়ানীবাজার জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে সমিতির সভাপতি আহমেদ ফয়সাল ও সাধারণ সম্পাদক সুয়াইবুর রহমান স্বপন এক বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে বলেন, মানববন্ধন ও ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে।
একাত্তরের কথার সম্পাদক ও প্রকাশককে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়, যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে আমরা মনে করি। অনাকাঙ্খিত আপত্তিকর এ বক্তব্য পরিহারের দাবি জানান বিয়ানীবাজার জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ।

নবীগঞ্জ সাংবাদিক ফোরাম:
দৈনিক একাত্তরের কথা’য় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে। বুধবার নবীগঞ্জ উপজেলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি সেলিম তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মুন্না এক বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে বলেন, মানববন্ধন ও এক ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে। একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়। যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে আমরা মনে করি। কাউন্সিলর সেলিমের আপত্তিকর এ বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানান নবীগঞ্জ উপজেলা সাংবাদিক ফোরামে নেতৃবৃন্দ।

নবীগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটি :
দৈনিক একাত্তরের কথা’য় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে। এঘটনায় নিন্দা ও তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন নবীগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতৃবৃন্দ। বুধবার নবীগঞ্জ উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি অলিউর রহমান অলি ও সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান চৌধুরী তছনু সংবাদপত্রে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কাউন্সিলর সেলিমের আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে বলেন, মানববন্ধন ও এক ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে।
একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়। যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে আমরা মনে করি।কাউন্সিলর সেলিমের আপত্তিকর এ বক্তব্য পরিহার না করলে পরবর্তী কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দেন নবীগঞ্জ উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতৃবৃন্দ।

নবীগঞ্জ প্রয়াত সাংবাদিক স্মৃতি সংসদ :
দৈনিক একাত্তরের কথায় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধনে ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন নবীগঞ্জ প্রয়াত সাংবাদিক স্মৃতি সংসদ এর নেতৃবৃন্দ। বুধবার নবীগঞ্জ প্রয়াত সাংবাদিক স্মৃতি সংসদ এর সভাপতি আনোয়ার হোসেন মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক ছনি চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্য’র তীব্র নিন্দা জানান। বিবৃতিতে তারা বলেন, মানববন্ধন থেকে একাত্তরের কথা পত্রিকা এবং এর সম্পাদক ও প্রকাশককে উদ্দেশ্য করে শিষ্টাচার বিবর্জিত হুমকিমূলক বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে, যা কোন ভাবেই কাম্য নয়। মানববন্ধনে ও পরে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য রেখে এর একটি ভিডিও রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও আপলোড করেছেন যা সংবাদপত্রের স্বাধীনতার জন্য হুমকি স্বরূপ। সিলেট বিভাগে রাজনৈতিক শিষ্টাচারে জন-প্রতিনিধি ও সংবাদপত্রের মাঝে সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্কের পরম্পরা যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। আমরা আশা করবো সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধি দৈনিক একাত্তরের কথা এবং এর সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে দেওয়া কাউন্সিলর সেলিমের বক্তব্য পরিহার করার দাবি জানান নবীগঞ্জ প্রয়াত সাংবাদিক স্মৃতি সংসদ এর নেতৃবৃন্দ।

লাখাই উপজেলা প্রেসক্লাব ও অনলাইন প্রেসক্লাব:
দৈনিক একাত্তরের কথা’য় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছালেহ আহমদ সেলিমকে নিয়ে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার নগরীর শাহজালাল উপশহরে মানববন্ধন ও ভিডিও বার্তায় একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করা হয়েছে। বুধবার লাখাই উপজেলা প্রেসক্লাব ও অনলাইন প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল কাসেম, সহ-সভাপতি উত্তম কুমার দেব, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জুনাইদ চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মতিন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সেলিমুর রহমান, অর্থ সম্পাদক সানি চন্দ্র বিশ্বাস, ক্রিড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আব্দুল হান্নান, সদস্য আলমগীর হোসেন তালুকদার, সিফার মাহমুদ, আব্বাস উদ্দিন সূর্য্য রায়, আয়েশা সিদ্দিকা ও অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মহসিন সাদেক, সাধারণ সম্পাদক নিতেশ দেব ও সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন আহমেদ বিজয় এক বিবৃতিতে আপত্তিকর বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে বলেন, মানববন্ধন ও এক ভিডিও সাক্ষাতকারে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে সাংবাদিকদের চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে। একাত্তরের কথা’র সম্পাদক ও প্রকাশকে জড়িয়ে অশ্লীল, আপত্তিকর ও অশোভন বক্তব্য সমীচীন নয়। যা মুক্ত সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে আমরা মনে করি। অনাকাঙ্খিত আপত্তিকর এ বক্তব্য পরিহারের দাবি জানান লাখাই উপজেলা প্রেসক্লাব ও অনলাইন প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ।