সৌদির আকাশসীমা ব্যবহার করবে ইসরায়েল

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :: সংযুক্ত আরব আমিরাত যেতে ইসরায়েলি বিমানকে সৌদি আরবের আকাশসীমা ব্যবহারের জন্য সম্মতি দিয়েছে রিয়াদ। হোয়াইট হাউজের সিনিয়র উপদেষ্টা জারেড কুশনার ও সৌদি কর্মকর্তাদের মধ্যে এক বৈঠকে এই অনুমতি মিলেছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স ও ইসরায়েলি বিভিন্ন গণমাধ্যম।

আলোচনার জন্য সৌদি আরব পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে এই ইস্যু উত্থাপন করেন কুশনার এবং মধ্যপ্রাচ্যের দূত আভি বেরকোউইটজ ও ব্রায়ান হুক। সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, আমরা এই ইস্যুর সমাধান করতে পেরেছি। অন্ত
মঙ্গলবার সকাল থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ইসরায়েলের মধ্যে প্রথম বাণিজ্যিক ফ্লাইট চালু হয়। এর মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে এমন সময়ে সম্মত হলো রিয়াদ। সৌদি আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি না পেলে আমিরাত-ইসরায়েলের মধ্যে ফ্লাইট বাতিল হওয়ার মতো সম্ভাবনা তৈরি হতো।

আগস্ট মাসে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করে আমিরাত ও বাহরাইন। পরে তাদের পদাঙ্ক অনুসরণ করে সুদানও। তাই সম্পর্ক স্বাভাবিক হওয়ার পর আমিরাতের সঙ্গে সরাসরি ফ্লাইট চালুর ঘোষণা দেয় ইসরায়েল। আমিরাতও দেশটিতে ফ্লাইট পরিচালনার করবে বলে জানায়।

ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার কারণে ইতোমধ্যেই এর সুফল পেতে শুরু করেছে আমিরাত। ওই চুক্তির পর মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির কাছে বেশকিছু অত্যাধুনিক প্রযুক্তি অস্ত্র বিক্রি করতে সম্মত হয় হোয়াইট হাউজ। এর মধ্যে এফ-৩৫ যুদ্ধবিমানও রয়েছে।
সুত্র : রয়টার্স ও ইসরায়েলি বিভিন্ন গণমাধ্যম