অধিগ্রহণকৃত ভূমিতে আশ্রয়নের ঘর নির্মাণের দাবি

কানাইঘাট প্রতিনিধি :: দেশের অন্যান্য স্থানের মতো কানাইঘাটে সরকারিভাবে আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় প্রাথমিকভাবে ১৯৩টি পরিবারকে ভিটবাড়িসহ ঘর নির্মাণ করে প্রদানের লক্ষ্যে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে প্রশাসনের উদ্যোগে সরকারি খাস জমি অধিকরণ শুরু এবং ঘর নির্মাণ চলছে। কানাইঘাট ৭নং দক্ষিণ বাণীগ্রাম ইউনিয়নে যাদের ভিটবাড়ি ও নিজস্ব জমি নেই একেবারে হতদরিদ্র ভূমিহীনদের আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় ঘর নির্মাণসহ জমি প্রদানের লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কায়স্থগ্রামের সুরমা নদী সংলগ্ন সরকারি খাস খতিয়ানে অবস্থিত উঁচু জমি বাড়ি-ঘর নির্মাণের উপযোগী ৭ একর জমি অধিগ্রহণ করায় ইউনিয়নের সচেতন মহল প্রশাসনকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবিদা সুলতানা গ্রামের যাতায়াতের পাশে অবস্থিত কায়স্থগ্রাম সুরমা নদী সংলগ্ন সরকারি খাস খতিয়ানে অবস্থিত ভূমি মাঠপর্যায়ে পরিদর্শন করে প্রাথমিকভাবে আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় ৭ একর ভূমি অধিগ্রহণ করেন।

দীর্ঘদিন ধরে এলাকার কতিপয় প্রভাবশালী মহলের দখলে থাকা সরকারি ভূমি আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় অধিগ্রহণ করার পর থেকে এই মহলটি এলাকায় জনসাধারণকে নানাভাবে ভুল বুঝিয়ে প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষেপিয়ে তুলার চেষ্টা করে যাচ্ছে বলে ইউনিয়নের সচেতন মহল ও সরকারি দলের নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন। তারা এসব সরকারি জায়গা জবর দখল করে রাখতে এলাকায় প্রশাসন যাতে করে সেখানে আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় ভ‚মিহীনদের জন্য সরকারি অর্থায়নে ঘর-বাড়ি নির্মাণ না করতে পারে এজন্য নানা ধরনের তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।

ইউনিয়নের একাধিক ব্যক্তির সাথে কথা হলে তারা বলেন, বাণীগ্রাম ইউনিয়নের হতদরিদ্র ভ‚মিহীনদের জন্য সরকারিভাবে ঘর-বাড়ি ও জমি প্রদানের লক্ষ্যে কায়স্থগ্রামে উপযুক্ত জায়গা অধিগ্রহণ করা হয়েছে। এখানে ভ‚মিহীনদের ঘর-বাড়ি নির্মাণ করা হলে সরকারি খরছ অনেকাংশে কম হবে এবং ভূমিহীনরাও উপকৃত হবেন। যারা এ নিয়ে এলাকায় জনগণকে প্রশাসনের বিরুদ্ধে উস্কে দিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে এবং সরকারি খাস জমি অধিগ্রহণে বাধা প্রদানকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।