৬ মাসে ৩ কোটি টিকা পাবে বাংলাদেশ

বেক্সিমকো-সেরাম চুক্তি

ডেস্ক রিপোর্ট :: ৬ মাসে ভারতের কাছ থেকে করোনা টিকার ৩ কোটি ডোজ পাবে বাংলাদেশ। এই মর্মে বৃহস্পতিবার দু’দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত হল সমঝোতা স্মারক (এমওইউ)। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের থেকে বাংলাদেশের বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালেসর মাধ্যমে এই টিকা পৌঁছবে বাংলাদেষে। অর্থাৎ, ব্রিটিশ ওষুধ নির্মাতা সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কিনবে বাংলাদেশ।
ভারতীয় সরকারি সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে এই নিয়ে একটি সমঝোতা স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তি হয়েছে সেরাম ইনস্টিটিউট ও বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের মধ্যে। বাংলাদেশে ভারতের হাই কমিশনার টুইট করে জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্কের মধ্যে এক উল্লেখযোগ্য সেতু তৈরি হল এর ফল
বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালিক জানিয়েছেন, যে মুহূর্তে ভারতে করোনার টিকা বাজারে আসবে, সেই মুহুর্তে বাংলাদেশের হাতে প্রায় ৩ কোটি করোনা টিকা এসে পৌঁছতে শুরু করবে। প্রতি মাসে ৫০ লক্ষ করোনা টিকা পাবে বাংলাদেশ।
শুক্রবার এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রাপ্তিকে সহজ ও দ্রুত সময়ের মধ্যে জনগণের নাগালে পৌঁছে দিতে সরকারি ও বেসরকারিভাবে সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে ভ্যাকসিন আসা মাত্রই দেশের জনগণ যাতে পায়, সে ব্যাপারে সরকার সব প্রস্তুতি নিয়েছে।
এখনও পর্যন্ত ভারতে পাঁচটি ভিন্ন ভিন্ন করোনার টিকা ট্রায়াল পর্যায়ে রয়েছে। যার মধ্যে চারটি রয়েছে দ্বিতীয়-তৃতীয় দফায়, আর একটি রেয়েছে প্রথম-দ্বিতীয় দফায়। বাংলাদেশ ছাড়াও কাতার, ভুটান, সুইজারল্যান্ড, মায়ানমার ভারতের সঙ্গে টিকা প্রস্তুতি ও সরবরাহের বিষয়ে চুক্তি করতে আগ্রহ দেখিয়েছে।