বাউল কল্যাণ সমিতির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

সিলেট জেলা বারের পিপি অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিন বলেছেন, বর্তমান সরকার বাউলদের কল্যাণে আন্তরিক। সুস্থধারার সংস্কৃতিককে ফিরিয়ে আনতে মরমী বাউল সাধকদের গান ৭১’র স্বাধীনতা যুদ্ধে তাদের অবদানও অনস্বীকার্য। দেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্য ও সমাজের সকল অসংগতি দুর করে একটি সুন্দর সমাজ নতুন প্রজাতন্ত্রের কাছে তুলতে সর্বদা কাজ করছেন বাউল শিল্পিরা। বাউলদের কল্যাণে বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগ দীর্ঘদিন যাবত কাজ করে যাচ্ছে।


তাদেরকে সর্বাত্মক সহযোগিতার জন্য আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি আরো বলেন, আমরা ছোটবেলা যে মরমি গান শুনার জন্য মাইলের পর মাইল পায়ে হেটে প্রচন্ড শীতের রাতে বিভিন্ন গানের অনুষ্ঠানে গিয়ে গান শুনে মনে আত্ম তৃপ্তি পেয়েছি আজ আর বাউল গানে সেই আত্ম তৃপ্তি পাই না। আমরা মরমি সাধকদের কালজয়ী গানগুলো প্রচার ও প্রসার ঘটতে আমার অবস্থান থেকে আমি সর্বাত্মক চেষ্টা করবো।
সিলেট নগরীর বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগের উদ্যোগে সংগঠনের তালতলাস্থ অস্থায়ী কার্যালয়ে বাংলাদেশের প্রবীণ সঙ্গীত পরিচালক ও বাংলাদেশ যন্ত্র সঙ্গীত শিল্পী সোসাইটির সভাপতি মনির হোসেনের সংবর্ধনা ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।


বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগের সভাপতি কামাল উদ্দিন রাসেল সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক বাউল সুর্যলাল দাস এর পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জগন্নাথপুর আর্ন্তজাতিক গীতি কবি পরিষদের সহ সভাপতি নুরুল ইসলাম, সিলেট বেতারের সঙ্গীত পরিচালক ও প্রবীণ যন্ত্রশিল্পি কুতুব উদ্দিন, বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগের সহ সভাপতি বাউল সিরাজ উদ্দিন।


অন্যানের‌্য মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথপুর আর্ন্তজাতিক গীতি কবি পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক আনছার উদ্দিন, বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক বশর বাউল, আছাব আলী, বাউল নুনু গাজী, সাবুল আহমদ, আব্দুর রহিম, শিবলু পাগলা, আব্দুল হাসিম প্রমুখ।
অনুষ্টান শেষে যুক্তরাজ্য প্রবাসী নওশাদ আলম সম্পাদিত বিরচিত নওশাদ গীতি’র মোড়ক উম্মোচন করেন অতিথিবৃন্দ। -প্রেসরিলিজ