মার্কিন রণতরীকে ধাক্কা মারার হুমকি রাশিয়ার!

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :: জাপান সাগরে তাদের জলসীমার মধ্যে ঢুকে পড়া মার্কিন নৌবাহিনীর একটি ডেস্ট্রয়ারকে ধাওয়া করেছে রাশিয়া। এই ডেস্ট্রয়ারকে পাকাড়াও করে ধাক্কার মেরে গুড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দিয়েছে রুশ বাহিনীর একটি যুদ্ধজাহাজ। মার্কিন জাহাজটির নাম ইউএসএস জন এস ম্যাককেইন। মস্কো বলছে, এটি পিটার দি গ্রেট উপসাগরে রুশ জলসীমার ২ কিলোমিটার ভেতরে ঢুকে পড়েছিল।
রাশিয়া জানিয়েছে, তারা মার্কিন যুদ্ধজাহাজটিকে ধাক্কা দেবার হুমকি দেবার পর সেটা ওই এলাকা ছেড়ে চলে যায়। তবে মার্কিন নৌবাহিনী অস্বীকার করে বলেছে, তাদের জাহাজটিকে বের করে দেয়া হয়নি।


জাপান সাগরে মঙ্গলবার এ ঘটনা ঘটে। এর তিনদিকে রয়েছে জাপান, রাশিয়া ও দুই কোরিয়ার উপকূল।
রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, তাদের প্রশান্ত মহাসাগরীয় নৌবহরের একটি ডেস্ট্রয়ার জাহাজ এ্যাডমিরাল ভিনোগ্রাদভ- একটি আন্তর্জাতিক যোগাযোগ চ্যানেল ব্যবহার করে মার্কিন জাহাজটিকে বার্তা পাঠায়। রুশ জলসীমা থেকে কোন অনুপ্রবেশকারীকে তাড়ানোর জন্য জাহাজের গায়ে আঘাত করে তাকে ঠেলে বের করে দেবার মতো পদ্ধতি ব্যবহারের সম্ভাবনা আছে।


তবে মার্কিন নৌবাহিনীর সপ্তম নৌবহরের একজন মুখপাত্র লে. জো কেইলি বলেন, এ মিশন সম্পর্কে রাশিয়ান ফেডারেশনের বিবৃতি মিথ্যা। ইউএসএস জন ম্যাককেইনকে কোন দেশের জলসীমা থেকে বের করে দেয়া হয়নি।
তিনি বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কখনো কোন ভীতিপ্রদর্শন বা বেআইনি দাবির কাছে নতি স্বীকার করবে না।
সমুদ্রে এ ধরনের ঘটনা খুবই বিরল। তবে গত বছর পূর্ব চীন সাগরে এই এ্যাডমিরাল ভিনোগ্রাদভের সাথে একটি মার্কিন যুদ্ধজাহাজের ধাক্কা লাগার উপক্রম হয়েছিল। তখন দুই দেশটি একে অপরকে এ ঘটনার জন্য দোষারোপ করে। দুটি দেশ প্রায়ই একে অপরের বিরুদ্ধে আকাশে ও সমুদ্রে বিপজ্জনক সামরিক মহড়া চালানোর অভিযোগ করে থাকে।


১৯৮৮ সালে কৃষ্ণসাগরে একটি সোভিয়েত ফ্রিগেট বেজ্জাভেৎনি তাদের জলসীমায় ঢুকে পড়ার অভিযোগে একটি মার্কিন ক্রুজারকে ধাক্কা মেরেছিল। বর্তমানে মস্কো ও ওয়াশিংটনের সম্পর্ক শীতিল যাচ্ছে, এবং প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন এখনও জো বাইডেনকে তার নির্বাচনী বিজয়ের জন্য অভিনন্দন জানাননি। দুটি দেশের মধ্যে সর্বশেষ পারমাণবিক অস্ত্র চুক্তিটিও এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি। যা আগামী ফেব্রয়ারিতে শেষ হচ্ছে।
সুত্র : বিবিসি