তথ্যদাতার পরিচয় গোপন থাকবে : পুলিশ কমিশনার

স্টাফ রিপোর্ট :: অপরাধীদের নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ নানা উদ্যোগ নিয়েছে। এজন্য পুলিশকে অপরাধীদের তথ্য দিয়ে সহযোগীতা করতে হবে। এজন্য তথ্যদাতার পরিচয় গোপন রাখা হবে। সেই সাথে সিলেট মহানগরীর পাড়া-মহল্লার অপরাধীদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। রোববার সকালে কোতোয়ালি থানায় আয়োজিত অপের হাউজ ডে অনুষ্ঠানে এসব কথা জানান মহানগর পুলিশ কমিশনার নিশারুল আরিফ।


তিনি বলেন, পুলিশ জনগণের সবচেয়ে কাছের বন্ধু। অপরাধীদের নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ জনগণের সহায়তা নিয়ে কাজ করে। অপরাধ দমনে ভয় না পেয়ে সকলেরই উচিত পুলিশকে সহায়তা করা। প্রতিটি এলাকায় বহিরাগতরা এসে অপরাধ করেনা। স্থানীয় ছেলেরাই তা করে থাকে। সুতরাং এলাকার লোকজন এদেরকে চেনেন। সে হিসেবে আপনারা আমাদের তথ্য দিয়ে সহায়তা করুন। তিনি আরও বলেন, অপরাধী হয়ে কেউ জন্মায়না। শিশুদের দুটি শিক্ষা রয়েছে। একটি প্রাথমিক শিক্ষা ও অপরটি পারিবারিক শিক্ষা। শুরুতে পরিবার থেকেই শিশুকে শিক্ষা নিতে হবে। এখান থেকে সুশিক্ষা পেলে তার নৈতিক অবক্ষয় হবে না। এখানে পরিবার বড় একটি ভূমিকা পালন করে। মহানগর পুলিশ অপরাধের তিন স্থরের যে তালিকা তৈরি হচ্ছে তার মধ্যে রয়েছ, কিশোর গ্যাং, ইভটিজার ও চাঁদাবাজদের। মহল্লাভিত্তিক এ তালিকা সম্পন্ন হওয়ার পরই আইনিভাবে এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে উপস্থিত পুলিশ কমিশনার স্থানীয় জনসাধারণের প্রশ্নের উত্তর দেয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য আস্বস্ত করেন এবং দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য প্রদান করেন। এছাড়া প্রতি মাসের ২২ তারিখে কোতোয়ালী থানায় ওপেন হাউজ ডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে বলে তিনি ঘোষণা করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমেদ, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন, কোতোয়ালি থানার সহকারী পুলিশ কমিশনার সামছুদ্দিন সালেহ আহমদ চৌধুরী পিপিএম বার, সিলেট সিটি করপোরেশন ১৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এসএম শওকত আমীন তৌহিদ।