কর্মই শিশিরকে বাঁচিয়ে রাখবে

একাত্তর ডেস্ক :: বয়সে নয় মানুষ তার কর্মের মাধ্যমেই স্মরণীয় হয়ে থাকে। সদ্যপ্রয়াত তরুণ লেখক শরিফুল হাসান শিশিরও বয়সের বিবেচনার বাইরে তার কর্মের মাধ্যমে নিজেকে তুলে ধরেছেন। মাত্র ৩১ বছরের জীবন পেলেও তার কর্ম তাকে মৃত্যুর পরও বাঁচিয়ে রাখার পথ করে দিয়েছে। পুলিশি দায়িত্বের ব্যস্ততার ফাঁকেও সার্জেন্ট শিশির যে ৩টি গ্রন্থ উপহার দিয়েছেন তা তাকে যুগ যুগান্তরের পথে স্মরণীয় করে রাখবে। শরিফুল হাসান শিশিরের জন্মদিবসকে সামনে রেখে স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমন মন্তব্য করলেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) উপকমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সল মাহমুদ। রোববার সন্ধ্যায় নগরীর আম্বরখানাস্থ জসিম বুক হাউসে এ স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শেষে শরীফুল হাসানের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন আবদুল গফুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক আতিকুর রহমান।
জসিম বুক হাউস সাহিত্যসেবার সভাপতি ছয়ফুল আলম পারুলের সভাপতিত্বে ও মাসুদ পারভেজের পরিচালনায় স্মরণসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দৈনিক একাত্তরের কথা’র বার্তা সম্পাদক সাঈদ চৌধুরী টিপু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জসিম বুক হাউসের কর্ণধার জসিম উদ্দিন। অনুষ্ঠানে সতীর্থদের মধ্যে স্মৃতিচারণ করেন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর নিখিল চাকমা। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন- দৈনিক একাত্তরের কথার চিফ ফটোগ্রাফার এস এম সুজন, লেখক জুবের আহমদ সার্জন, রোকসানা বেগম, মোস্তাফিজ সৈয়দ, লুৎফা আহমদ লিলি, সার্জেন্ট শাহজাহান প্রমুখ।