আফগান যুদ্ধে ২৬ হাজারের অধিক শিশু নিহত ও বিকলাঙ্গ

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :: যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে গত ১৪ বছর ধরে গড়ে প্রতিদিন যতজন নিহত কিংবা বিকলাঙ্গ হচ্ছেন, এর মধ্যে পাঁচ জনের একজন শিশু। আন্তর্জাতিক শিশু বিষয়ক সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেন এমন খবরই জানিয়েছে। জাতিসংঘের দেয়া তথ্যের বরাতে শিশুদের নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক এই সংস্থাটি জানিয়েছে যে, ২০০৫ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তানে ২৬ হাজার ২৫ শিশু প্রাণ হারিয়েছে নয়তো বিকলাঙ্গ হয়েছে। জেনেভায় তহবিল সংক্রান্ত এক বৈঠকের আগে এ তথ্য প্রকাশ করে দাতা দেশগুলোর প্রতি যুদ্ধ কবলিত আফগান শিশুদের ভবিষ্যতের সুরক্ষার বিষয়টিতে মনযোগী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সেভ দ্য চিলড্রেন।
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির সোমবারের এক অনলাইন প্রতিবেদনে এমন খবর জানিয়ে বলা হচ্ছে, স্থগিত হওয়া শান্তি আলোচনা এবং মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের মধ্যেই আফগানিস্তানে সহিংসতা আরও বাড়ছেই।
সেভ দ্য চিলড্রেন বলছে, শিশুদের জন্য বিশ্বের শীর্ষ ১১টি ভয়ঙ্কর দেশের একটি হলো আফগানিস্তান।
শুক্রবার প্রকাশিত সেভ দ্য চিলড্রেনের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৯ সালে ৮৭৪ আফগান শিশু নিহত এবং ২ হাজার ২৭৫ শিশু বিকলাঙ্গ হয়েছে; যা ওই বছর সংঘাতে যে কোনো দেশের তুলনায় সর্বোচ্চ হতাহত। আফগান সরকারি পক্ষ এবং বিরোধী তালেবান সেনাদের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ ও সব ধরনের ইমপ্রোভাইজড বোমা (আইইডি) বিস্ফোরণের ফলে গত বছর দেশটিতে নিহত ও বিকলাঙ্গ শিশুর দুই-তৃতীয়াংশই ছেলেসন্তান।
প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, সশস্ত্র তালেবান সদস্যদের সঙ্গে দেশটিতে মার্কিন সেনাদের নিয়ে দেশটির সরকারি সেনাদের মধ্যে চলা সংঘর্ষে নিয়মিতই দেশটির স্কুলগুলোতে বোমাসহ নানা ধরনের হামলার ঘটনা ঘটেছে।
সেভ দ্য চিলড্রেন জানাচ্ছে, ২০১৭ থেকে ২০১৯ সালে আফগানিস্তানে তিন শতাধিক বার স্কুলে হামলা হয়েছে। প্রসঙ্গত, ২০০১ সালে টুইন টাওয়ারে হামলার পর আফগানিস্তানে সামরিক অভিযান শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র।
সুত্র : সেভ দ্য চিলড্রেন, বিবিসি