দোয়ারাবাজারে স্কুলের জায়গা দখলের অভিযোগ

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে স্কুলের মাঠ জোরপূর্বক দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনা ঘটেছে উপজেলার দোহালীয়া ইউনিয়ন কান্দাগাঁও নোয়াগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। মাঠের জায়গা জোরপূর্বক গাছের চারাও রোপণ করা হয়েছে।
এব্যাপারে দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও দোয়ারাবাজার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি কান্দাগাঁও গ্রামের মো. আব্দুল জব্বার।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ১৯৭১ সালে এলাকাবাসীর উদ্যোগে কান্দাগাঁও নোয়াগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এক একর জায়গায় স্থাপিত হয়। বর্তমানে দখলে আছে বিদ্যালয়ের ২৪ শতক জায়গা। স্কুল স্থাপনের প্রায় ৫০ বছর পর স্কুলের মাঠের মধ্যখানে কান্দাগাঁও গ্রামের তৈমুছ আলী ও তার ভাইয়েরা মিলে সুপারি গাছের চারা রোপণ করে স্কুলের মাঠ দখল করেন।
এব্যাপারে বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল জব্বার বলেন, বর্তমানে করোনাভাইরাসের কারণে সারা দেশের মতো এ স্কুলও বন্ধ রয়েছে। এরই ফাঁকে ২ নভেম্বর তৈমুছ আলী ও তার ভাই-ভাতিজা মিলে স্কুলের মাঠে গাছের চারা রোপণ করেন। এতে বাধা দিলে তারা তা মানেনি। এজন্য আমরা প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছি।
এব্যাপারে দোয়ারাবাজার উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা পঞ্চানন কুমার সানা বলেন, স্কুলের মাঠের মধ্যখানে গাছের চারা রোপণ করে জায়গা দখলের বিষয়টি আমরা দেখেছি। স্কুল স্থাপন করা হয়েছে প্রায় ৫০ বছর পূর্বে। যদি কারো কোন অভিযোগ থাকত তাহলে এতদিন কেনো বলেনি। এখন গাছের চারা রোপণ করে দখলের চেষ্টা করছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।
দোয়ারাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাজির আলম বলেন, স্কুলের মাঠ দখল করার বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি সরেজমিন তদন্তও করেছি। এখন স্থানীয় মুরব্বিরা মীমাংসা করার জন্য কিছু সময় নিয়েছেন। যদি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা না হয়, তবে দখলদারদের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।