জাফলংয়ে ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি :: সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার জাফলংয়ে ইমরান আহমদ মহিলা কলেজের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের প্রতিবাদ ও ধর্ষককে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে জাফলং আমির মিয়া স্কুল এন্ড কলেজের সামনে স্থানীয় এলাকাবাসীর উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
পূর্ব জাফলং ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আতাউর রহমান আতাইর সভাপতিত্বে ও জাফলং ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাব্বির রহমান সাজনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ব্যবসায়ী করিম আহমদ, জাফলং ছাত্রলীগের সভাপতি ইউসুফ আহমদ, ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য নূরুল হক শিকদার, ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা আব্দুল করিম, ব্যবসায়ী মজির আহমেদ, যুবদল নেতা জিএম শফিক প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ধর্ষণের বিরুদ্ধে যখন সারা দেশ ফুসে উঠেছে ঠিক এই সময়ে এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ করে সেই দৃশ্য মোবাইলে ধারণ ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এমন ন্যক্কারজনক ঘটনায় যারা জড়িত তাদের কঠিন থেকে কঠিনতর শাস্তি দাবী করছি।
একই সঙ্গে দ্রæত সময়ের মধ্যে ধর্ষণকারী তাহেরকে গ্রেপ্তার করায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির উদ্দেশ্যে বক্তারা আরও বলেন, এমসি কলেজে ধর্ষণের ঘটনায় যেমন ধর্ষকদের পক্ষে কোন আইনজীবী আদালতে দাঁড়ায়নি, ঠিক তেমনি এই ধর্ষকের পক্ষে আপনারা কেউ আদালতে দাঁড়াবেন না বলে আমরা আশা প্রকাশ করছি।
উল্লেখ্য, সিলেটের জাফলংয়ে এক কলেজ শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ এবং সে দৃশ্য মোবাইল ফোনে ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
রোববার রাতে ধর্ষণের শিকার ওই কলেজ ছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে গোয়াইনঘাট থানায় মামলাটি দায়ের করেন।
মামলায় উপজেলার পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নের টেকনাগুল গ্রামের ফয়জুল হকের ছেলে তাহের মিয়া ও তার ভগ্নীপতি পূর্ব জাফলং ইউনিয়নের নয়াবস্তি গ্রামের আলিম উদ্দিনকে আসামি করা হয়। মামলার পর প্রধান অভিযুক্ত তাহের মিয়াকে ওইদিন রাতেই গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।