শীতে সতর্ক হতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

একাত্তর ডেস্ক :: দেশে মাঝে করোনাভাইরাস সংক্রমণ কমলেও শীতে বাড়তে পারে বলে সবাইকে সতর্ক করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শীত নামার ঠিক আগে কয়েকদিন ধরে শনাক্ত রোগী বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে বুধবার সংসদে প্রশ্নোত্তরে বিশেষজ্ঞদের বরাত দিয়ে এই সতর্কবার্তা দেন তিনি। স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরার সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়। প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকারের দূরদর্শী নেতৃত্ব, সময়োচিত সিদ্ধান্ত এবং দক্ষ ব্যবস্থাপনায় এখন র্পযন্ত কোভিড-১৯ বিশ্ব মহামারীকে সফলভাবে মোকাবেলা করা সম্ভব হয়ছে। এ মুহূতে বাংলাদশে কোভিড-১৯ এর প্রকোপ কিছুটা কমে এলেও তা আসন্ন শীতকালে আবার বেড়ে যাবে পারে বলে বিশেষজ্ঞগণ অভিমত ব্যক্ত করেছেন। ইউরোপ ও আমেরিকাকে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে নাকাল হওয়ার কথাও বলেন তিনি। শীতে সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কায় সরকার ইতোমধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার উপর জোর দিয়েছে। ঘরে বাইরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করার পাশাপাশি তা বাস্তবায়নে ভ্রাম্যমাণ আদালতও নামিয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আসন্ন শীত মৌসুমে সংক্রমণ যাতে বাড়তে না পারে, সেজন্য ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়নের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সারাদেশের পয়েন্ট অফ এন্ট্রিসমূহে আসা যাত্রীদের স্ক্যানিং অব্যাহত রয়েছে। বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কোভিড-১৯ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে গৃহীত কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ চলছে বলে জানান তিনি।
টিকা সংগ্রহের ব্যবস্থা করা হচ্ছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ৩ কোটি ভ্যাকসিন আমদানির লক্ষ্যে গত ৫ নভেম্বর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউট ও বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের মধ্যে ত্রিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। মহামারীকালে আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগীদের কাছ থেকে জরুরি আপদকালীন অর্থায়নের ব্যবস্থা করতে পারার কথাও বলেন সরকার প্রধান।
তিনি বলেন, করোনাভাইরাস মহামারী অভিঘাত মোকাবেলায় বাংলাদেশকে ৩৫ বিলিয়ন ইয়েন বা ৩৩ কোটি মার্কিন ডলার আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে জাপান, যা স্থানীয় মুদ্রায় প্রায় ২ হাজার ৭২০ কোটি টাকা। এডিবি প্রায় ৬০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ ও অনুদান দিয়েছে। করোনাভাইরাসের টিকাসহ জরুরী চিকিৎসাসামগ্রী কিনতে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও সরকারের মধ্যে একটি চুক্তি সই হয়েছে, যার আওতায় সংস্থাটি থেকে ৩০ লাখ ডলার অনুদান পাওয়া যাবে।