হবিগঞ্জে অবৈধ যানবাহান চলাচল বন্ধ না হলে কঠোর কর্মসূচি

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন সড়ক ও মহাসড়কে অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধ করা না হলে তারা সকল বাস জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করে দেবেন বলে জানান হবিগঞ্জ মটর মালিক গ্রুপ, জেলা বাস, মিনিবাস কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়ন সমন্বয় পরিষদের নেতৃবৃন্দ। জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার অবৈধ যানবাহন বন্ধ করে দিবেন বলে আশ্বস্ত করলেও এর কোন কার্যক্রম নেই বলেও অভিযোগ করেন।
বুধবার (১৮ নভেম্বর) দুুপুরে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তারা এসব অভিযোগ তুলে ধরেন।
হবিগঞ্জ মটর মালিক গ্রুপের সভাপতি মো. ফজলুর রহমান চৌধুরী সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন সড়ক মহাসড়কে অবৈধ গণপরিবহণ চলাচল করছে। এমনকি হাইকোর্টের নির্দেশনা অমান্য করে মহাসড়কে সিএনজি অটোরিক্সা চলছে। এছাড়া ও অবৈধভাবে টমটম, নসিমন, করিমন ও ব্যাটারীচালিত অটোরিক্সা চলছে। এসব পরিবহণ বন্ধের জন্য দীর্ঘদিন ধরে আমরা দাবি জানিয়ে আসছি। বিভিন্ন সময় বাস চলাচল বন্ধ করে কর্মবিরতি পালন করেছি। এ সময় প্রশাসনের লোকজন অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলেও কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি।
তিনি বলেন, এসব অবৈধ যানবাহনের কারণে দিনের পর দিন মোটা অংকের লোকসান গুণতে হচ্ছে বৈধ পরিবহণগুলোকে। অনেক পরিবহণ এখনও দেওরিয়া হওয়ার পথে। পাশাপাশি অবৈধ পরিবহণগুলোর বেপরোয়া চলাচলের কারণে প্রাণ দিতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। কিন্তু এরপরও তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। বাস শ্রমিকরা এ ব্যাপারে প্রতিবাদ করলে মারধরের শিকার হতে হয়।
লিখিত বক্তব্য তিনি আরও বলেন, সবশেষ গত ১৪ অক্টোবর আমরা জেলা গ্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছি। কিন্তু এরপরও কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা না নেয়ার কারণে ২০ অক্টোবর বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়। এ সময় জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার আমাদের আশ্বস্ত করেন ১ নভেম্বর থেকে অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া শুরু হবে। কিন্তু ১৮ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। যে কারণে বাধ্য হয়ে আমাদেরকে কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। আগামী ২৮ নভেম্বরের মধ্যে জেলার বিভিন্ন সড়ক মহাসড়কে অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধ না হলে ২৯ নভেম্বর থেকে বাস চলাচল স্থায়ীভাবে বন্ধ করে বাসগুলো জেলা প্রশাসকের কাছে হস্তান্তর করে দেয়া হবে।
সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ মটর মালিক গ্রুপের সাবেক সভাপতি শফিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক শংখ শুভ্র রায়, হবিগঞ্জ জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়ন সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. সজিব আলী, হবিগঞ্জ মটর মালিক গ্রুপের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস আহমেদ শ্রমিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল মিয়া প্রমুখ।