জৈন্তাপুরে মহিলার গলাকাটা লাশ উদ্ধার

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি :: সিলেট জৈন্তাপুর উপজেলার ফতেপুর এলাকায় নিজ বসতঘর থেকে সাবিয়া বেগম (৩৫) নামের এক মহিলার গলাকাটা লাশ উদ্ধার এবং ঘাতক স্বামী বাবুল আহমদকে আটক করেছে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশ।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের উত্তর বাঘেরখাল মুলকরটির এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে।
খুন হওয়া নারী উত্তর বাঘেরখালের মুলকরটির এলাকার বাবুল আহমদের প্রথম স্ত্রী। বাবুল এ পর্যন্ত তিনটি বিয়ে করে। বাবুল দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে নিজ বাড়িতে বসবাস করে আসছে। প্রথম স্ত্রী তার নানা বাড়িতে থাকেন। বাবুলের সাথে প্রথম স্ত্রীর মনোমালিন্য চলছিল।
প্রতিদিনের মত বুধবার রাতে ৩ বছর বয়সের এক নাতনিকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে সাবিয়া।
সকালে নাতনির ঘুম ভাঙ্গলে নানিকে ডাকা ডাকি করে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে নাতনি। স্থানীয়রা শিশুটির কান্না শুনে দরজা খুলে দেখেন সাবিয়া বেগমের গলা কাটা লাশ পড়ে আছে। স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য তার লাশ সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাপাতালে প্রেরণ করে।
জৈন্তাপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিন আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত সাবিয়া বেগমকে তার স্বামী বাবুল আহমদ হত্যা করেছে। তাই আমরা বাবুল আহমদকে আটক করে নিয়ে আসি। অধিকতর তদন্তের জন্য নিহতের লাশ সিলেট ওসমানি হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।