ফেঞ্চুগঞ্জে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন, উত্তেজনা

ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি :: সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার জেটিঘাট এলাকা থেকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানা যায়, আজ শনিবার সকালে জেটিঘাট এলাকায় একটি মহল ড্রেজার দিয়ে এক কুশিয়ারা নদী থেকে বালু উত্তোলন শুরু করলে আশপাশের গ্রামবাসীরা লাঠিসোটা নিয়ে প্রতিরোধ করার চেষ্টা করেন। খবর পেয়ে ফেঞ্চুগঞ্জ থানা পুলিশ গিয়ে উপরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

এলাকাবাসীরা জানান, এখানে প্রায়ই অবৈধ বালু উত্তোলন করা হয় ফলে নদীভাঙ্গনের শিকার মধুরাই গ্রাম সহ আশপাশ এলাকা।

সরেজমিনে দেখা যায় জেটিঘাট এলাকায় শক্তিশালী ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। উত্তোলিত বালু বোলগেট (বালু পরিবহন জাহাজ) দিয়ে উজানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে পুর্ব গৌরিপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হিমাংশ রঞ্জন দাস ঘটনা স্বীকার করে বলেন, বালু উত্তোলন নিয়ে ঝামেলা হয়েছিল পুলিশ এসে নিয়ন্ত্রণ করেছে। তিনি জানান, ফেঞ্চুগঞ্জ সার কারখানা এ বালু উত্তোলনের কাজ করছে। তাদের অনুমতি আছে কি নাই তা জানা নাই। ফেঞ্চুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ শাফায়েত হোসেন বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বালু উত্তোলন সংক্রান্ত অনুমতির ব্যাপারে পুলিশ অবগত নয়, এটা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বলতে পারবে।

ফেঞ্চুগঞ্জ সারকারখানা এসএফসিএল এর এমডি মো. মফিজুর রহমান ঘটনা স্বীকার করে বলেন, বালুর কাজ আমরা করাচ্ছি। এখানে কারখানার সার রাখার জন্য গোদামঘর বানানোর কাজ চলছে। কিন্তু নদী থেকে বালু উত্তোলনের অনুমতি আছে কি না?

এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা প্রজেক্ট ম্যানেজার বলতে পারবে! এ ব্যাপারে বক্তব্য নিতে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাখি আহমেদকে মোবাইলে বেশ কয়েকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।