মায়ের ওয়ার্ডে প্রার্থী হচ্ছেন মেয়ে

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ১, ২ ও ৩ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডে বার বার নির্বাচিত কাউন্সিলর মোছা. পিয়ার বেগম অসুস্থতার কারণে এবার আর নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন না।

তবে এ ওয়ার্ডে প্রার্থী হচ্ছেন তারই মেয়ে মিসেস রুনা আক্তার। তিনি ইতোমধ্যে নির্বাচনী এলাকায় পোস্টার, ফেস্টুনসহ ব্যানার লাগিয়ে দোয়া ও ভোট কামনা করছেন।

ষাটোর্ধ্ব কাউন্সিলর পিয়ারা বেগম পাঁচ মাস আগে হৃদরোগে আক্রান্ত হন। এরপর থেকে প্রায়ই অসুস্থতায় ভুগছেন। তিনি ভালো ভাবে কারো সাথে কথা বলতে পারছেন না। বাসায় থেকে নিয়মিত চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সূত্রে জানা যায়, অসুস্থ থাকার কারণে মহিলা কাউন্সিলর পিয়ারা বেগম এবার আর নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন না, তবে মায়ের নির্দেশে নির্বাচন করবেন মেয়ে রুনা আক্তার। ইতিমধ্যে পারিবারিক ভাবে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

রুনা আক্তার জানান, তার মা পিয়ারা বেগম ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের তিন বারের নির্বাচিত কাউন্সিলর। এছাড়াও পৌরপরিষদে প্রতিবারই প্যানেল মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন এবং দুই বছর ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পালন করেছেন সত্যতা ও নিষ্ঠার সাথে। বর্তমানে প্যানেল মেয়র-২।

তিনি আরো বলেন, আমার মা দীর্ঘদিন ধরে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে এলাকার মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন। মায়ের মত আমি এলাকার মানুষের সেবা করতে চাই। আশা করি আমার মাকে যে ভাবে এলাকাবাসী মূল্যায়ন করেছেন তেমনি আমাকে মূল্যায়ন করবেন।

ব্যক্তিগত জীবনে রুনা আক্তার একজন গৃহিনী। ১ পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জননী। তার স্বামী ঢাকার একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী।

এক/কাহা/এক