ব্যারিস্টার সুমনসহ যুবলীগে সিলেটের একাধিক মুখ

স্টাফ রিপোর্ট :: বিভিন্ন ইস্যুতে ফেসবুক লাইভের সুবাদে দেশজুড়ে আলোচিত ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন পেয়েছেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় আইন সম্পাদকের পদ। তিনি ছাড়াও যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির বিভিন্ন পদে স্থান পেয়েছেন সিলেট বিভাগের একাধিক নেতা। শনিবার বিকালে যুবলীগ সভাপতি শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাঈনুল হোসেন খান নিখিল স্বাক্ষরিত অনুমোদিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি থেকে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।
সিলেট বিভাগ থেকে কেন্দ্রীয় কমিটির বিভিন্ন পদে দায়িত্বপ্রাপ্তরা হলেন আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মুকিত চৌধুরী, উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক ফজলে রাব্বি স্মরণ, উপ তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক শেখ মো. মিছির আলী, উপ-মহিলা সম্পাদক সৈয়দা সানজিদা শারমিন ও নির্বাহী সদস্য নুরুল ইসলাম নুরু মিয়া।
যুবলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়া হয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আলোচিত আইনজীবী ও যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের সাবেক প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন সামাজিক নানা সমস্যা নিয়ে ফেসবুক লাইভ করে আলোচিত হন ব্যারিস্টার সুমন। এছাড়া ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের (আইসিটি) মামলা করে সুমন।
মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হয়েছেন আব্দুল মুকিত চৌধুরী। তিনি হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলায়। যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাবেক সদস্য ছিলেন তিনি। বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন।
কমিটিতে উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক হয়েছেন সুনামগঞ্জের ফজলে রাব্বী স্মরণ। তিনি সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি। তার মা অ্যাডভোকেট শাহানা রব্বানী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি। পিতা প্রয়াত গালাম রব্বানীও আওয়ামী লীগ নেতা ছিলেন। কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেয়েছেন আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক সমাজকল্যাণমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত সৈয়দ মহসিন আলীর মেয়ে সৈয়দা সানজিদা শারমিন। তিনি মৌলভীবাজার জেলা যুবলীগের ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। এর আগে তিনি মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মহসীন আলী ফাউন্ডেশনেরও সাধারণ সম্পাদক।