বাসে আগুন : গয়েশ্বর-টুকুসহ পাঁচ শতাধিক আসামি

একাত্তর ডেস্ক :: বৃহস্পতিবার রাজধানীর ৭টি থানা এলাকায় ১১টি বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনায় ১০টি মামলা করেছে পুলিশ। এছাড়া পুলিশের ওপর হামলা, নাশকতা ও বিস্ফোরণের ঘটনায় আরও ৩টি মামলা হয়েছে। সব মিলিয়ে মামলার সংখ্যা ১৩।

পুলিশের উত্তরা বিভাগের তিনটি থানায় ৪টি মামলা করা হয়। চার মামলায় হুকুমের আসামি করা হয়েছে ঢাকা-১৮ আসনে বিএনপির প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেনকে।

বৃহস্পতিবার রাতে দায়ের করা এসব মামলায় বিএনরি স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, ছাত্রদল সভাপতি ফজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশেন নির্বাচনে বিএনপির পরাজিত মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেনসহ এজাহারভুক্ত আসামির সংখ্যা পাঁচশতাধিক। প্রত্যেকটি মামলায় অজ্ঞাত আরও অনেককে আসামি করা হয়। বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের অনেক শীর্ষ নেতা একাধিক মামলায় আসামির তালিকায় আছেন। আসামিদের মধ্যে শুক্রবার পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে ২৯ জনকে। তাদের মধ্যে শুক্রবার ২৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড নেওয়া হয়েছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলের প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রহমত উল্লাহ চৌধুরী বলেন, আগুনে পোড়া সব কয়েকটি বাস থেকে আলামত সংগ্রহ করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে গান পাউডারের অস্তিত্ব মিলেছে।

এদিকে গাড়ি পোড়ানো ও বিস্ফোরক আইনে দায়ের করা মামলার পর অভিযান জোরদার করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। আসামিদের ধরতে এরই মধ্যে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে আছে। ঢাকা মহানগর পুলিশের ডিসি (মিডিয়া) ওয়ালিদ হোসেন বলেন, মামলার আসামিদের ধরতে অভিযান শুরু হয়ে গেছে। আসামিদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

এক/এক