দেশে ফিরলেন ভারতে আটক ৩০ জন

একাত্তর ডেস্ক :: দালালের খপ্পরে পড়ে ভারতে গিয়ে আটক ৩০ জন বাংলাদেশি নারী-পুরুষ ও শিশুকে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পু্লশি। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টার সময় ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করেন। অভাবের কারণে দালালের খপ্পরে পড়ে ২ থেকে ৮ বছর আগে অবৈধ পথে ভারতে যান তারা। এদের মধ্যে ১০ জন পুরুষ ও ২০ জন নারী রয়েছেন। তারা ভারতের মুম্বাই ও কোলকাতাসহ বিভিন্ন শহরে বাসা বাড়িতে কাজ করার সময় সে দেশের পুলিশের হাতে আটক হয়। পরে সেখান থেকে সংলাপ, লিলয়া, সুশীলনসহ ১১টি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। পরে দু’দেশে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনে তাদের দেশে ফিরিয়ের আনা হলো।

ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশি উপ-হাইকমিশনার বি.এম জামাল হোসেন বলেন, ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে যারা এসেছেন তাদেরকে বাংলাদেশের মানবাধিকার সংস্থা, মহিলা আইনজীবি সমিতি ও জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার নামে ৩ এনজিওর মাধ্যমে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

যশোর মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বিনয় কৃষ্ণ মল্লিক বলেন, শুক্রবার যারা ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে দেশে ফিরলেন, তারা সংসারে অভাবের তাড়নায় ২ থেকে ৮ বছর আগে দালালের মাধ্যমে ভারতের বিভিন্ন জেলা শহরে যায় কাজের/চাকরির সন্ধানে। সেখানকার পুলিশ তাদের আটক করে ভারতের ১১ এনজিও সংস্থার কাছে হস্তান্তর করে। দু-দেশের আইনী প্রক্রিয়া শেষে তারা দেশে ফিরছেন।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব ৩০ জন বাংলাদেশি নারী-পুরুষ ফেরত আসার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে তাদেরকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। আর যাদের অভিভাবক আজ আসেনি তাদেরকে যশোর মানবাধিকারের লোকজন হেফাজতে নিয়ে তাদের শেল্টার হোমে রাখবেন। পরে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করবেন।

এক/এক