ড্রেন নির্মাণের অজুহাতে কাটা হল সরকারি গাছ

ধর্মপাশা প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় ইউএনওর নির্দেশে কেটে ফেলা হয়েছে ৩ লক্ষাধিক টাকা মূল্যের তিনটি সরকারি রেইনট্রি গাছ। উপজেলা পরিষদ চত্বরে এলজিইডির ড্রেন নির্মাণের অজুহাতে এ গাছ কাটা হয়। উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন অফিসার্স কোয়ার্টারের পেছনে অবস্থিত ওই গাছগুলো কয়েকদিন ধরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে ৪/৫ জন শ্রমিক কাটার কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত বিশালাকৃতির ৩টি গাছই পুরোপুরি কেটে ফেলা হয়েছে। বন বিভাগের অনুমতি ছাড়া সরকারি গাছ কাটার বিধান না থাকলেও উন্নয়নের স্বার্থেই তারা এমনটি করেছেন বলে দাবি করছেন সংশ্লিষ্টরা। বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার সেলবরষ ইউনিয়নের খয়েরদিরচর গ্রামের আক্কাছ আলীর নেতৃত্বে ৪/৫ জন শ্রমিক গাছ কাটার কাজে নিয়োজিত রয়েছে। আক্কাছ আলীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাদের গাছ কাটার কাজে নিয়োজিত করেছেন। ধর্মপাশা উপজেলায় বন বিভাগের দায়িত্বে থাকা ফরেস্টার আনিসুর রহমান বলেন, গাছ না কাটলে ড্রেন করা যাচ্ছে না, ড্রেনের স্বার্থেই গাছ কাটা হচ্ছে। উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী মো. আরিফ উল্লাহ খান বলেন, কাজের স্বার্থে আগেই গাছ কাটা হচ্ছে, পরে তা বন বিভাগ নিলাম দেবে। পরিপত্র আছে উন্নয়নের স্বার্থে গাছ কাটা যায়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনতাসির হাসান বলেন, পরিষদ চত্বরের গাছ পরিষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী উন্নয়নের স্বার্থে কাটা যায়। তবে পরে কাটা গাছগুলো বন বিভাগ দাম নির্ধারণ করে দিলে তা প্রকাশ্যে নিলামে বিক্রি করা হবে।