সিলেটে ২য় দিনের অভিযানে ১০৭ যানবাহন আটক

একাত্তর ডেস্ক :: ৩৬টি রেজিস্ট্রেশনবিহীন ও কাগজপত্রহীন মোটরসাইকেল, ১২টি নিষিদ্ধ ঘোষিত যানবাহনসহ সর্বমোট ১০৭টি যানবাহন আটক করা হয়েছে। সিলেটে ট্রাফিক পুলিশের দ্বিতীয় দিনের অভিযানে এসব যানবাহন আকট করা হয়। বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) মেট্রোপলিটন এলাকার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ১০৭টি যানবাহন আটক ও ৪৯টি প্রসিকিউশন দাখিল করেছে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ।
জানা গেছে, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানো ও সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের নির্দেশে ট্রাফিক বিভাগ দ্বিতীয় দিনের মতো মহানগরীতে আটটি চেকপোস্টের মাধ্যমে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে।

এসএমপি ট্রাফিক বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার ফয়সল মাহমুদের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) জ্যোতির্ময় সরকার পিপিএম-এর নেতৃত্বে এই অভিযানকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়। একেকভাগে ৪টি করে মোট ৮টি তল্লাশি চৌকি বসিয়ে অবৈধ যানবাহন, রেজিস্ট্রেশন বিহীন যানবাহনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-উত্তর) আবুল খয়েরের দায়িত্বে এক নং ভাগের অধীনে চারটি চেকপোস্ট বসানো হয়। চেকপোস্টগুলো হলো- তেমুখী বাইপাস, লাক্কাতুরা বাজার, আম্বরখানা ও শেখঘাট।
সহকারী পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-দক্ষিণ) আশিদুর রহমান আরেকটি ভাগের দায়িত্ব পালন করেন। তার নেতৃত্বে চন্ডিপুল, প্যারাইরচক, আলমপুর ও সুরমা বাইপাস স্থানগুলোতে আরও চারটি চেকপোস্ট বসানো হয়।
চেকপোস্ট পরিচলনার মাধ্যমে নিষিদ্ধ যানবাহন, রেজিস্ট্রেশন বিহীন যানবাহন, ফিটনেস বিহীন যানবাহন, মোটরসাইকেলে ত্রিপল রাইডার, হেলমেট বিহীন মোটরসাইকেল চালকদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে ৪২টি নিবন্ধন সিএনজি অটোরিকশা, ১০টি বাহিরের জেলার সিএনজি অটোরিকশা, ৩৬টি রেজিষ্ট্রেশন বিহীন ও কাগজপত্র বিহীন মোটরসাইকেল, ১২টি নিষিদ্ধ ঘোষিত যানবাহনসহ সর্বমোট ১০৩টি গাড়ি ডাম্পিং করে পুলিশ লাইন্স প্রেরণ করা হয়। এছাড়াও ত্রিপল রাইডার ও হেলমেট বিহীন মোটরসাইকেল চালকদের বিরুদ্ধে সড়ক পরিবহন আইনে ৪৯টি প্রসিকিউশন দাখিল করা হয়।

তেমুখী বাইপাস, লাক্কাতুরা বাজার, সুরমা বাইপাস, আলমপুর ফাঁড়ির সামনে, পারাইরচক পয়েন্ট, আম্বরখানা ও শেখঘাট পয়েন্টে বিশেষ চেকপোস্ট বসানো হয়। রেজিস্ট্রেশন বিহীন যানবাহন আটক, মোটরসাইকেলে তিনজন আরোহী ও হেলমেট বিহীন মোটরসাইকেল চালকদের বিরুদ্ধে এ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়।