করোনায় রক্ষা পাওয়া ৫ জনের একজন মানসিক অসুস্থ

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হওয়া প্রতি ৫ জনের মধ্যে একজনের মারাত্মক মানসিক অসুস্থতা শনাক্ত করেছেন চিকিৎসকরা। তারা দেখতে পেয়েছেন ৯০ দিনের মধ্যে এমন মানসিক অস্থিরতায় ভোগেন এসব রোগী। যেসব সমস্যায় তারা ভোগেন তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো উদ্বেগ, হতাশা ও অনিন্দ্রা। এছাড়া তাদের মধ্যে উন্মত্ততা ও মস্তিষ্কের বৈকল্যও দেখতে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা।
বৃটেনের ইউনিভার্সিটি অব অক্সফোর্ডের মনোরোগ বিষয়ক প্রফেসর ও গবেষণার লেখক পল হ্যারিসন বলেছে, কোভিড-১৯ থেকে বেঁচে উঠা মানুষ মারাত্মক মানসিক স্বাস্থ্য সঙ্কটে ভোগে বলে অনেকেই উদ্বিগ্ন। আমাদের গবেষণাও তাই বলছে। এর কারণ নির্ধারণে বিশ্বের চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীদের জরুরি ভিত্তিতে অনুসন্ধান করার প্রয়োজন। একই সঙ্গে কোভিড-১৯ থেকে রক্ষা পাওয়ার পর নতুন মানসিক অসুস্থতার চিকিৎসাও বের করা প্রয়োজন।
সোমবার এই গবেষণাকর্ম প্রকাশিত হয়েছে দ্য ল্যানচেট সাইক্রিয়াট্রিক জার্নালে। এতে যুক্তরাষ্ট্রের ৬ কোটি ৯০ লাখ মানুষের স্বাস্থ্যের বিষয়ে ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে বিশ্লেষণ করা হয়েছে। এর মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হওয়া কমপক্ষে ৬২ হাজার মানুষ রয়েছেন। গবেষণায় দেখা গেছে, করোনা পজেটিভ শনাক্তের প্রথম তিন মাসের মধ্যেই বেঁচে থাকা প্রতি ৫ জনের মধ্যে একজনের পরীক্ষায় উদ্বেগ, হতাশা ও অনিন্দ্রা ধরা পড়েছে।
গবেষকরা বলছেন, অন্য রোগে আক্রান্ত রোগীদের ক্ষেত্রে একই সময়ে এ সমস্যায় ভোগা রোগীর সংখ্যার চেয়ে এই সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ। গবেষণায় আরো দেখা গেছে, মানসিক অস্থিরতায় ভুগছেন এমন ব্যক্তিদের শতকরা ৬৫ ভাগের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।
হ্যারিসন বলেন, এর কারণ হতে পারে এই করোনা ভাইরাস সরিাসরি মানুষের ব্রেনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। যার ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
সুত্র : দ্য ল্যানচেট সাইক্রিয়াট্রিক জার্নাল, আল জাজিরা