ভোট চলছে: যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে আতংক উৎকন্ঠা

হেলাল উদ্দীন রানা
যুক্তরাষ্ট্রের সাধারণ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলছে। স্থানীয় সময় ভোর থেকে শুরু হয়ে রাজ্য ভেদে তা রাত ৮টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে চলবে। মোট প্রায় ২৪ কোটি ভোটারের মধ্যে ১০ কোটির মতো ভোটার আগাম ভোট দিয়েছেন অথবা ডাকযোগে তাঁদের ব্যালট পাঠিয়ে দিয়েছেন। আজ কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে প্রায় সমান সংখ্যক ভোটার সারা দেশে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন বলে আশা করা হচ্ছে।
এবারের ভোট ভোটারের সর্বোচ্চ টার্ন আউটের রেকর্ড গড়তে চলেছে। আগামী দিনে যুক্তরাষ্ট্র কোন পথে যাবে, বিশ্বের ভূ-রাজনীতির গতি প্রকৃতি, অস্থির বর্তমান বিশ্বের স্থিতিশীলতা এবং ভবিষ্যত এই নির্বাচন নির্ধারণ করবে। এখন পর্যন্ত কোথাও কোন সহিংসতা বা কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। তবে যুক্তরাষ্ট্রের সর্বত্র এক থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।
যে কোন সময় যে কোন সহিংস ঘটনার আশংকায় সকলেই আতংকিত রয়েছেন। বাংলাদেশী সহ ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ইমিগ্রেন্ট জাতি গোষ্ঠী এই নির্বাচনে সীমাহীন উদ্বেগ উৎকন্ঠায় এক অনিশ্চিত অবস্থার মাঝে দিন কাটাচ্ছেন। তবে সকলেই শান্তিপূর্ণ ভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হোক এটাই কামনা করছেন মনে-প্রাণে। নিউইয়র্কসহ আমেরিকার বড় বড় শহরগুলোতে নিরাপত্তার জন্য লুটতরাজ থেকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রক্ষা করতে বড় বড় কার্ড বোর্ড (প্লাই উড) লাগিয়ে রাখছেন।
ডাকযোগের ভোটে জালিয়াতি হতে পারে এমন আগাম আশংকা প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি কোর্টে যাওয়ারও হুমকি দিয়ে রেখেছেন। বাড়তি সর্তকতা হিসেবে হোয়াইট হাউসে নতুন তারের বেষ্টনী লাগানোর পাশাপাশি যে কোন ধরনের বিক্ষোভ ঠেকাতে হোয়াইট হাউসে সামনে ব্যরিকেড স্থাপন করা হয়েছে।
বাইডেন তাঁর হোম টাউন উইলমিংটন, ডেলাওয়ারে বসে স্ত্রী জিল বাইডেন ও তাঁর ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী কমলা হ্যারিস ও তাঁদের পরিবারের সাথে নির্বাচনী রাত উদযাপন করবেন এবং সেখান থেকেই নির্বাচন বিষয়ে বক্তব্য দেবেন। গত রাতে বাইডেন যুদ্ধক্ষেত্র পেনসেলভেনিয়ার পশ্চিম অঞ্চলে সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে তাঁর নির্বাচনী প্রচার কাজ শেষ করেন। দীর্ঘ বক্তব্যে বাইডেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কঠোর সমালোচনা করে ঐক্যবদ্ধ আমেরিকার ডাক দেন। তিনি বলেন, বিগত চার বছরে ট্রাম্প আমেরিকাকে বিভাজন করেছেন, হানাহানি ছড়িয়ে দিয়েছেন।
প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে তাঁর ঘনিষ্ঠ প্রায় ৪শ লোক নিয়ে নির্বাচনী রাতের পার্টির আয়োজন করেছেন। এসময় তিনি হোয়াইট হাউসের পার্শ্ববর্তী তাঁর ট্রাম্প টাওয়ার হোটেলে যাতায়াত করবেন। নির্বাচন চলাকালীন জরিপে বাইডেন এগিয়ে আছেন জাতীয় ভাবে ভাল ব্যবধানে।
এছাড়া যে সব রাজ্য নির্বাচনের ফলাফল নির্ধারণে বড় রকমের ভূমিকা রাখবে বলে মনে করা হচ্ছে, সেই মিশিগান, পেনসেলভেনিয়া ও উইসকনসিনেও বাইডেন অগ্রগামী আছেন।
আগাম কাষ্ট হওয়া ব্যালটে ডেমোক্রাট প্রার্থী জো বাইডেন সুবিধা জনক অবস্থানে আছেন এমনটা মনে করেন পর্যবেক্ষকরা। এই তিনটি রাজ্যে বিজয়ী হলে বাইডেন হোয়াইট হাউসে যাচ্ছেন এমনটা বলছেন ইউএস নির্বাচনী বিশেষজ্ঞরা।
এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের মিডিয়ায় নির্বাচনের বিশেষ অনুষ্ঠান শুরু হয়ে গেছে। নির্বাচনী ফলাফল না আসা পর্যন্ত একটানা এসব কভারেজ চলবে। সকলেই সেইরকম প্রস্তুতি নিয়ে এগুচ্ছে। সম্পূন্ন ফলাফল জানা না গেলেও সবকিছু ঠিক থাকলে আজ মধ্যে রাত অর্থাৎ বাংলাদেশ সময় আজ ভোরের দিকে কে বিজয়ী হচ্ছেন এরকম আভাস পাওয়া যেতে পারে।
সর্বশেষ : উৎসাহ উদ্দীপনা নিয়েই ভোটাররা ভোট দিচ্ছেন। কোন কোন রাজ্যে কেন্দ্রে উপস্থিতি কম হলেও ব্যাটালগ্রাউন্ড রাজ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস মিলছে। তবে আগাম বা ডাকযোগের ভোটে বাইডেনের পাল্লা ভারি এমন পূর্বাভাস দিচ্ছে মার্কিন মিডিয়া। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র সময় দুপুর সাড়ে বারোটায় ভোটারদের লাইন দীর্ঘতর হচ্ছিল। অনেকের সাথে আলাপ করে জানা গেছে তারা নিজেদের কাজ-কর্ম সেরে ভোটের কেন্দ্রমুখি হচ্ছেন।