পাথর কোয়ারী খুলে দেওয়ার দাবিতে সভা

সিলেটের পাথর কোয়ারী সমূহ খুলে দিয়ে লাখো শ্রমজীবি ও হাজারো ব্যবসায়ীর জীবন-জীবিকা নিশ্চিত করনের দাবিতে ‘বৃহত্তর সিলেট পাথর সংশ্লিষ্ট জীবিকা নির্বাহকারী ব্যবসায়ী শ্রমিক ঐক্য পরিষদ’র এক সভা শনিবার নগরীর আম্বরখানাস্থ হোটেল পলাশে অনুষ্ঠিত হয়। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পাথর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আব্দুল জলিলের সভাপতিত্বে ও ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল আমিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগীয় ট্রাক পিকাপ কাভার্ট ভ্যান মালিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি গোলাম হাদী ছয়ফুল।

প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা ট্রাক-পিকআপ-কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু সরকার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক ইউনিয়নের সেক্রেটারী আমির উদ্দিন।

সভায় বক্তরা বলেন, সিলেটের পাথর কোয়ারী সমূহ বন্ধ থাকায় পাথর সংশ্লিষ্ট জীবিকা নির্বাহকারী লাখো শ্রমজীবি লোক ও হাজারও ব্যবসায়ী রোজগার বঞ্চিত হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। একটি অপশক্তি কৌশলে প্রশাসন এবং সরকারে ভূল তথ্য দিয়ে পাথর কোয়ারীসমূহ বন্ধ করে ফায়দা লুটার ধান্দায় লিপ্ত রয়েছে। কোয়ারী বন্ধ থাকায় কোম্পানীগঞ্জ, গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর, ছাতক, কানাইঘাট এলাকার কর্মহীন লাখো মানুষ চরম খাদ্য সংকটে দিনাতিপাত করছেন। এ অবস্থা অব্যাহত থাকলে সিলেটের প্রান্তিক জনপদের দূর্ভিক্ষ দেখা দেয়ার আশংখ্যা বৃদ্ধমান। লাখও মানুষের জীবন অস্থিত রক্ষায় তাই আন্দোলনের বিকল্প নেই। সভায় পাথর কোয়ারী খুলে দেওয়ার দাবীতে সর্বাত্মক আন্দোলনের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

সভায় অন্যানদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নাসির উদ্দিন, আবুল হোসেন, শওকত আলী বাবুল, ডা. রইছ উদ্দিন, জসিমুল ইসলাম আঙ্গুর, কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক শাব্বির আহমদ, মতিউর রহমান, রফিকুল ইসলাম, আওয়াল মিয়া, মজলু মিয়া, সিরাজুল ইসলাম, রিয়াজ উদ্দিন, শাব্বির আহমদ ফয়েজ, আজির মিয়া, সৈয়দ সালেহ আহমদ শাহনাজ, সায়েস্তা মিয়া, আমিনুল হক, সাংবাদিক আকবর রেদওয়ান মনা, ফারুক আহমদ, কামাল হোসেন প্রমুখ।-প্রেসরিলিজ