এক দিনের ব্যবধানে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

করোনার আঘাত

স্টাফ রিপোর্ট
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মঙ্গলবার সকালে মৃত্যু হয়েছে সিলেট নগরীর ব্লু-বার্ড স্কুলের গণিতের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক নিকুঞ্জ বিহারী দাস। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েই আক্রান্ত হয়ে আগের দিন মারা যান তার স্ত্রী রেনুকা চৌধুরী। তিনিও অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অবস্থাতেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাবা-মায়ের শেষকৃত্য সম্পন্ন করেছেন তাদের মেয়ে সংস্কৃতিকর্মী অদিতি দাস।
জানা গেছে, ৬ অক্টোবর মা রেনুকা চৌধুরীর (৬৮) শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। পরে তার স্বামী নিকুঞ্জ বিহারী দাসের (৮২) শরীরেও করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর মাঝে রেনুকা চৌধুরীর শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে তাকে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ভোর পাঁচটার দিকে মারা যান তিনি। স্ত্রীর মৃত্যুর এক দিন পর স্বামী নিকুঞ্জ বিহারীও মঙ্গলবার সকাল ৯টায় মারা যান।
নিকুঞ্জ বিহারী নগরীর দাড়িয়াপাড়া এলাকায় তার বাসায় স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে থাকতেন। একমাত্র ছেলে ভারতে থাকেন। ভাই দেশের বাইরে অবস্থান করায় নিজে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরও বাবা-মায়ের শেষকৃত্য অদিতিকেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে পালন করতে হয়েছে। নগরের চালিবন্দর এলাকার মহাশ্মশানে তঁদের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।